আবারো উহানে লকডাউন

78

আবারো উহান শহরে লকডাউন দিয়েছে চীনের সরকার। দুই বছরেরও বেশি সময় আগে এই শহরেই প্রথম করোনা ভাইরাস রেকর্ড করা হয়েছিল।আজ বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে একথা জানায় বিবিসি ও আল জাজিরা।

করোনা ভাইরাসের তথ্য প্রদানকরা সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাব অনুযায়ী ভাইরাসজনিত এ রোগটিতে বিশ্বব্যাপী এখন পর্যন্ত ৫ কোটি ৭৮ লাখ ৫১ হাজার ৫৭৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন।  সবচেয়ে বেশি মারা গেছে যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে ১০ লাখ ৫৩ হাজার ৯৬৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরপরই ভারতের অবস্থান। দক্ষিণ এশিয়ার এ দেশটিতে ৫ লাখ ২৬ হাজার ১৬৭ জন মারা গেছে। চীনে ২০১৯ সাল থেকে এখন পর্যন্ত মারা যাওয়া মানুষের সংখ্যা ৫ হাজার ২২৬ জন।

প্রথম থেকেই চীন করোনা মোকাবিলায় ‘জিরো নীতি’ অবলম্বন করে আসছে। এরই অংশ হিসেবে দেশটি গণ পরীক্ষা, কঠোর বিচ্ছিন্নতা নিয়ম এবং স্থানীয় লকডাউনের মতো পদক্ষেপ নিতে দেরি করছে না।

এক কোটি ২০ লাখ মানুষের শহর উহানে নিয়মিত করোনার পরীক্ষা চালাচ্ছে কর্তৃপক্ষ।  দুই দিন আগে সেখানে উপসর্গহীন দুই করোনা রোগী শনাক্ত হয়।  নতুন করে আরো দুই করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পরপরই লকডাউন ঘোষণা করে চীন সরকার।  একই সঙ্গে তিনদিনের জন্য শহরটির ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গণ পরিবহনের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।  প্রয়োজন ছাড়া মানুষদের বাড়ি থেকে বাইরে যেতে ও কাউকে ওই এলাকায় যাওয়ার ব্যপারেও নিষেধ করা হয়েছে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে বিশ্বে সর্বপ্রথম চীনের উহান শহরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়।

সূত্র: বিবিসি, আল-জাজিরা