অফিস-আদালত খুললেও ঢাকা এখনও ফাঁকা

125

আজ মঙ্গলবার। ঈদুল আজহার তৃতীয় দিন। তিন দিনের সরকারি ছুটি শেষে অফিস-আদালত খুলে দেওয়া হয়েছে আজ। তারপরও ফাঁকা ঢাকার চিত্রই দেখা গেছে সকাল থেকে। কারণ এখনও ঈদ কাটাতে দেশে যাওয়া অনেক মানুষই ফেরেননি রাজধানীতে।

বরাবরের মতো এবারও প্রিয়জনের সান্নিধ্যে ঈদ কাটাতে লাখ লাখ মানুষ ঢাকা ছেড়েছেন। মূলত এ কারণেই ফাঁকা হয়ে পড়েছে ঢাকা। অবশ্য এরইমধ্যে ছুটি শেষ হয়ে যাওয়ায় ট্রেন, বাস ও লঞ্চে চেপে আবারও কাজে ডুব দিতে ঢাকা ফিরতে শুরু করেছেন নাড়ির নটানে বাড়ি ফেরা মানুষগুলো।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর সড়কগুলোতে খুব বেশি যান চলাচল করতে দেখা যায়নি। ফার্মগেট, মিরপুর ও গাবতলীর মতো ব্যস্ততম এলাকাগুলো একেবারেই ফাঁকা। অনেক দোকানপাটই বন্ধ। সড়কে যানবাহনের সংখ্যাও হাতেগোনা। রাজধানীর সবচেয়ে ব্যস্ত বাণিজ্যিক এলাকা মতিঝিলেও দেখা গেছে সুনসান নিরবতা।

রাজধানী ঢাকার চিরচেনা দৃশ্য রাস্তার যানজট, মাত্রাতিরিক্ত গাড়ি, বিষাক্ত ধোঁয়া আর কানের পর্দাপাটানো তীব্র শব্দে হর্ন বাজানোর বালাই না থাকায় অনেকটাই যেন দূষণমুক্ত হয়ে গেছে ঢাকা। ঢাকার বাতাস যেন নির্মল হয়ে উঠেছে। তীব্র রোদ আর গরমেও ঢাকাবাসী স্বস্তিতেই রাস্তায় চলাচল করতে পারছেন।

সড়কে বাস-মিনিবাসের সংখ্যা যেমন হাতেগোনা তেমনি যাত্রী সংখ্যাও প্রায় শূন্যের কোটায়। এই মুহূর্তে প্রাইভেটকার ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার দখলে রয়েছে ঢাকার রাজপথ। ঢাকার বুকে সচরাচর যা পাওয়া যায় না সেই ফাঁকা রাস্তা পেয়ে চালকরা বেশ বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন। তীব্র গতিতে গাড়ি চালাচ্ছেন তারা।

ধারণা করা হচ্ছে, চলতি সপ্তাহটা এমন ঈদের আমেজেই কাটবে রাজধানীবাসীর। ফাঁকা ঢাকা স্বরূপে ফিরে আসবে আগামী সপ্তাহের শুরুতে।